পরীমনির বিয়ের অনুষ্ঠানে হবে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার

আলোচিত ছবিগুলোর প্রিমিয়ার শো করা একটা কমন ট্রেন্ড। সে শো সাধারণত অনুষ্ঠিত হয় দেশের কোনো অভিজাত সিনেমা হলে। হয়তো মাঝে মধ্যে তা কোনো অডিটোরিয়ামে হয়। তাই বলে বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার শোয়ের কথা কেউ শুনেছেন?

এমন অভিনব প্রিমিয়ার শোয়ের আয়োজন করেছে ‘গুণিন’। একদিকে পরীমনি ও শরিফুল রাজের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা চলবে। আরেকদিকে হবে ছবির প্রিমিয়ার শো।

পরীমনির বিয়ের অনুষ্ঠানে হবে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার

আর পুরো আয়োজনটি করছে ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান চরকি। সারাবাংলাকে তারা জানান, আগামী ৯ মার্চ বিকেল ৪টা থেকে রাজধানীর একটি অভিজাত কনভেনশন সেন্টারে পরী-রাজের বিয়ের অনুষ্ঠান হবে। এতে পরী পালকি দিয়ে এসে নামাসহ নানা ধরনের আয়োজন রয়েছে। একদম বাঙালি বিয়ের অনুষ্ঠানে যা যা থাকে তার সবই রাখা হয়েছে এখানে। আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য রয়েছে কাচ্চিসহ নানা আয়োজন।

বিয়ের অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকেল ৫টা থেকে অতিথিদের সঙ্গে ‘গুণিন’ দেখবেন পরী-রাজ।

এর আগে গত ১০ জানুয়ারি পরী-রাজ তাদের বিয়ের খবর সবাইকে জানান। একইসঙ্গে জানান তারা মা-বাবা হতে যাচ্ছেন। তারা জানিয়েছিলেন, গুণিনের শুটিংয়ের সময় গত বছরের ১৭ অক্টোবর তারা বিয়ে করেন। তাদের উকিল বাবা ছিলেন পরিচালক রেদোয়ান রনি।

পরীমনির বিয়ের অনুষ্ঠানে হবে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার

এরপর গত ২১ জানুয়ারি গায়ে হলুদ করেন পরী-রাজ। ২২ জানুয়ারি করেন বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান। তবে তা শুধু পরিচিত ও কাছের মহলের কাছে সীমাবদ্ধ থাকলেও এবারের আয়োজনটি থাকছে বড় করে।

গিয়াসউদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘গুণিন’-এ শরিফুল রাজ ও পরীমনি রমিজ-রাবেয়া। এই সিনেমার শুটিং করতে গিয়েই তাদের পরিচয়, তারপর প্রণয়, অতপর পরিণয়।

হাসান আজিজুল হকের ছোটগল্প ‘গুণিন’ থেকে নেয়া হয়ে এই সিনেমার গল্প। সিনেমার নাম চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম। সেই সঙ্গে দিলারা জামান, ইরেশ যাকের, মোস্তফা মন্ওয়ার, শিল্পী সরকার অপু, ঝুনা চৌধুরীসহ আরও অনেককেই দেখা যাবে এই সিনেমায়।

পরীমনির বিয়ের অনুষ্ঠানে হবে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার

‘গুণিন’ সিনেমার গল্প গ্রামীণ ওঝা রজব আলী গুণিনকে নিয়ে। তার আধ্যাত্মিক ক্ষমতা ছিল। এই ক্ষমতার জোরে গ্রামে তার বিশাল প্রভাব। তার তিন নাতি রহম, আলী ও রমিজ। গুণিনের রহস্যজনক মৃত্যুর পরবর্তী পরিস্থিতিতে তার দুই নাতি তথা আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব ও ত্রিভুজ প্রেমের গল্পই এই চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য।

‘গুণিন’-এর এমন অভিনব প্রিমিয়ার শো দর্শকদের মধ্যে ছবিটি নিয়ে বেশ আগ্রহ তৈরি করবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। গিয়াসউদ্দিন সেলিমের আগের দুটি ছবির মতো এ ছবিটিও কতটুকু প্রত্যাশা পূরণ করে এখন তা-ই দেখার অপেক্ষা।পরীমনির বিয়ের অনুষ্ঠানে হবে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার

মতার জোরে গ্রামে তার বিশাল প্রভাব। তার তিন নাতি রহম, আলী ও রমিজ। গুণিনের রহস্যজনক মৃত্যুর পরবর্তী পরিস্থিতিতে তার দুই নাতি তথা আপন দুই ভাইয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব ও ত্রিভুজ প্রেমের গল্পই এই চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য।

‘গুণিন’-এর এমন অভিনব প্রিমিয়ার শো দর্শকদের মধ্যে ছবিটি নিয়ে বেশ আগ্রহ তৈরি করবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। গিয়াসউদ্দিন সেলিমের আগের দুটি ছবির মতো এ ছবিটিও কতটুকু প্রত্যাশা পূরণ করে এখন তা-ই দেখার অপেক্ষা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.