স্থানীয়দের হামলায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ জন শিক্ষার্থী আহত

ইবি প্রতিনিধি

স্থানীয়দের হামলায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। আহতদের তাৎক্ষণাৎ বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নেয়া হয়। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রাত ৯টার দিকে ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী শেখ পাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

খবর নিয়ে জানা গেছে, ঝিনাইদহ জেলার গাড়াগঞ্জ এলাকা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ জন শিক্ষার্থী বাসে উঠেন। বাসে জিনিসপত্র রাখা নিয়ে বাসের কন্টাক্টরের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। পরে বাসটি শেখপাড়া পৌঁছালে শিক্ষার্থীরা হেলপারের উপর চড়াও হয়। পরে ওই হেলপার পাশের এক দোকানে ঢুকেন। এসময় হেলপারকে দোকান থেকে বের করতে গেলে দোকানদারের সাথে কথা কাটাকাটি হয় শিক্ষার্থীদের। একপর্যায়ে ওই দোকানদার শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে। এসময় শিক্ষার্থীরের সাথে স্থানীয়দের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে স্থানীয়রা হকিস্টিক, লাঠি, চাপাতি ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে। এসময় ২ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হওয়াসহ প্রায় ২০ জন শিক্ষার্থী আহত হন। পরে গুরুতর আহতদের বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে নেওয়া হয়।

এদিকে ঘটনার পর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে রাত ১০টার দিকে মাইকে ঘোষণা দিয়ে পূণরায় হামলার চেষ্টা চালায় স্থানীয়রা। রাত প্রায় সাড়ে ১১টা পর্যন্ত স্থানীয়রা লাঠি, হকিস্টিক ও বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী এলাকায় কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান নেয় তারা। পরে সাড়ে ১১টার দিকে আলোচনায় বসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডি ও স্থানীয় লোকজন।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ড. আমজাদ হোসেন বলেন, আমরা পরিবেশ পর্যবেক্ষণ করেছি। স্থানীয়দের সাথে কথা বলেছি, পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.